Skip to main content

নির্বাচনী প্রচার কাজের পরিবেশ ও পরিসর থাকতে হবে: মন্টু

  • মন্টু

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম শরীক গণফোরামের নেতা মোস্তফা মহসিন মন্টু বলেছেন, অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে গেলে একটি পরিবেশ পরিসর থাকতে হবে। প্রার্থীদের নিজ নিজ এলাকায় থাকতে হয় এবং নির্বাচনী প্রচার ও বিভিন্ন কর্মকান্ডের জন্য অন্তত একমাস সময় প্রয়োজন। তাই আমাদের দাবি, নির্বাচন একমাস পিছিয়ে দেয়া। বুধবার বিবিসিকে দেয়া সাক্ষাতকারে তিনি এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশন হঠা করে তফসিল ঘোষণা করলেন, এরপর সাত দিন পেছালেন। আমাদের প্রার্থীদের সমর্থকরা বেশির ভাগই মামলা নিয়ে ফেরারি হয়ে আছেন। প্রার্থীদেরকে তাদের প্রচার কাজে যারা সহযোগিতা করবেন তাদের জন্য একটি সুষ্ঠু পরিবেশ থাকতে হবে। তাই যে সময়টুকু দরকার সে হিসেবে এটি যথেষ্ট নয়। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের সময় ড. কামাল হোসেন কিন্তু সংবিধানের ভেতর দিয়েই এসব হতে পারে তার ব্যাখ্যাগুলো দিয়ে এসেছেন। প্রসঙ্গত, বিএনপিসহ বিরোধীদলগুলোর জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নির্বাচন আরও পেছানোর দাবি নিয়ে আজ নির্বাচন কমিশনে যাচ্ছেন কথা বলতে। বিরোধীদের দাবির মুখে নির্বাচন ইতোমধ্যে এক সপ্তাহ পেছানো হয়েছে। কিন্তু জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট বলছে, এক সপ্তাহ যথেষ্ট নয়।
যদি নির্বাচন কমিশন নির্বাচন না পেছায় তখন আপনারা কী করবেন? এ প্রশ্নের উত্তরে মন্টু বলেন, সাত দফা বা এগার দফা কর্মসূচি এগুলোর কিছুইতো মানা হয়নি, তবুও আমরা জাতিয় স্বার্থে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার ইচ্ছা পোষণ করেছি। যদি পেছানো না হয় তখন পরিবেশ পরিস্থিতি চিন্তা করে সবার সাথে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নিতে হবে।
‘এমন নয় যে, আপনারা নির্বাচনে যাবেন না, সেক্ষেত্রে দাবিগুলো সরকারের উপর চাপ সৃষ্টির কৌশল’ কি না জানতে চাইলে মন্টু বলেন, নির্বাচন যে করে তার ইচ্ছা থাকে জয়লাভ করার এবং সরকার গঠন করার। আমরা চাচ্ছি, একটি অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের মধ্য দিয়ে দেশের প্রত্যেকটি মানুষ তাদের গণতান্ত্রিক ভোটাধিকার প্রয়োগ করুক। সেটার মধ্য দিয়ে জনমত যাচাই হয়ে যায় যে, তারা রাষ্ট্রপরিচালনার জন্য কাকে কাকে সংসদে চাচ্ছে। কিন্তু সেটার পরিবেশই যদি না থাকে, মানুষ যদি ইচ্ছেমতো ভোট না দিতে পারে, কার্যক্ষেত্রে যদি বাধা প্রদান করা হয় বা মামলা মোকাদ্দমা দিয়ে বা পুলিশের ভয় দেখিয়ে কর্মীদেরকে সরিয়ে রাখা হয় তাহলে আমরা একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন আশা করতে পারি না।