Skip to main content

মুখোমুখী অমিতাভ ও আমির

  •  মুখোমুখী অমিতাভ ও আমির
    মুখোমুখী অমিতাভ ও আমির

গত কয়েক দিন ধরেই একেকটা নতুন চরিত্রের প্রথম ঝলক (ফার্স্ট লুক) আসছিল। তাই সবাই অপেক্ষাতে ছিলেন ‘থাগস অব হিন্দোস্তান’ সিনেমার ট্রেলার প্রকাশের। গতকাল বৃহস্পতিবার এটি প্রকাশিত হয়। সেখানে আমির খান ও অমিতাভ বচ্চনকে দেখা গেল মুখোমুখী দাঁড়াতে।

আমির খান ও অমিতাভ বচ্চন যে সিনেমায় থাকবেন তাতে দর্শকদের একটা বাড়তি আগ্রহ থাকবে, এটাই স্বাভাবিক। তাই প্রথম ঝলক প্রকাশের পর ট্রেলার দেখার জন্য ভক্তরা মুখিয়ে ছিলেন। গতকাল যশ রাজ ফিল্মসের প্রতিষ্ঠাতা যশ চোপড়ার জন্মদিনে প্রকাশিত হয় ট্রেলারটি। ১৭৯৫ সালের হিন্দুস্তানকে দেখানো হয় ট্রেলারে। ব্যাকগ্রাউন্ডে বলা হয়, ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি এসেছিল ব্যবসা করার জন্য কিন্তু তারা শাসন করতে শুরু করে। এই শাসন অনেকেই মানতে পারে না। সেই অনেকের মধ্যে একটি নাম ‘আজাদ’।

পর্দায় দেখা যায় ‘থাগ’রূপী অমিতাভ বচ্চনকে। সাগরে ভাসমান জাহাজে আক্রমণ করেন ইংরেজদের। ইংরেজের পক্ষের একজন জানতে চাইলে ‘আজাদ’ নামে তাঁর পরিচয় দেওয়া হয়। যদিও প্রথম ঝলকে এই অমিতাভ বচ্চনকে পরিচয় করিয়ে দেওয়া হয়েছিল প্রধান ‘থাগ’ খোদাবক্স রূপে। পরে বোঝা যায়, মুক্তির জন্য লড়াই করা এই দলটির নাম আজাদ। তাই এর প্রতিটি সদস্য আজাদ নামে পরিচিত। এই আক্রমণের মধ্যেই মারদাঙ্গারূপে দেখা মেলে নারী ‘থাগ’ দঙ্গল সিনেমার অভিনেত্রী ফাতিমা সানা শেখের। আক্রমণাত্মক ধনুর্বিদের চরিত্রে তাঁকে দেখা যায়। প্রথম ঝলকে তাঁর দেখা মেলে জাফিরা নামে। এই থাগদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে ব্রিটিশরা। আজাদের মোকাবিলা করতে তারা নিয়োগ দেয় এক ধূর্তকে।

ফিরাঙ্গি নামে আমিরের আগমন ঘটে। তিনি যে ধূর্ত তার প্রমাণ মেলে ব্রিটিশদের কাছে তাঁর পরিচয়ের মাধ্যমে। নিজেকে তিনি ‘বাস্টার্ড’ রূপে পরিচয় দেন। তাঁকে কখনো ব্রিটিশদের নিজস্ব লোক হিসেবে দেখা যায়। কখনো আবার নিজের তরবারি জমা দিয়ে আজাদ দলে যোগ দিতে দেখা যায়। আবার তাঁকেই দেখা যায় আজাদ অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে লড়াই করতে। তাই দর্শক একটু ধন্দে পড়তে পারেন আমিরের চরিত্রটি নিয়ে।

এই রহস্যটুকু রেখে দিয়েছেন পরিচালক বিজয় কৃষ্ণ আচার্য। রহস্যের জট খুলতে আগামী ৮ নভেম্বর পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। এ দিন মুক্তি পাচ্ছে ছবিটি। ও হ্যাঁ, আরেকজনের পরিচয়ই বলা হয়নি। ট্রেলারে দেখা যায় সুন্দরী সুরাইয়া রূপী ক্যাটরিনা কাইফকে। তবে তাঁর চরিত্রটি ঠিক কী? তা ছবি মুক্তির আগ পর্যন্ত অজানাই থেকে গেল। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস